Sunday, 5 January 2014

শেষ মুহূর্তে চলছে ‘সীল’ মারার মহোৎসব

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের বিভিন্ন এলাকার ভোটকেন্দ্রগুলোতে শেষ মুহূর্তে জোর করে সীল মারার মহোৎসব চলছে। দুপুরের পর থেকে ভোটার সংখ্যা ও ভোট বাড়াতেই প্রশাসনের ইঙ্গিতে এ মহোৎসব শুরু হয়। এ প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সাংবাদিকদেও বলেছেন ,‘আমরা ঘণ্টায় ঘণ্টায় ভোট পরিস্থিতির খবর নেয়ার চেষ্টা করছি। কিন্তু তারা প্রক্রিয়া চলমান থাকায় হিসাব দিতে পারছেন না। পুরো পরিস্থিতি জানতে হলে বিকেল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’ আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল কাদেরও বলেছেন, শেষ মুহূর্তে ভোটার সংখ্যা দেখে বিরোধীরা হতাশ হবেন। ইতোমধ্যে সরকারদলীয় প্রার্থীর পক্ষে জাল ভোট দেয়ার অভিযোগে ৮জন প্রার্থী নির্বাচন বয়কট করেছেন। প্রশাসনের নির্দেশে শেষ মুহূর্তে জাল ভোট দিয়ে ভোটার সংখ্যা বাড়ানোর যে আশংকা ছিল শেষ পর্যন্ত তা-ই সত্যি হতে চলেছে। সারাদেশের ভোটকেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী দুপুর পর্যন্ত ১২ শতাংশ ভোট পড়ে বলে জানা গেছে। এই হার শেষ পর্যন্ত ৩০ বা তারও বেশি সংখ্যায় নেয়ার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ-যুবলীগ আর আওয়ামী লীগ কর্মীদের কেন্দ্রে ঢুকে জোর করে দেদারসে সীল মারার মহোৎসব চলছে। এ চিত্র জামায়াত-শিবির অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের বিভিন্ন কেন্দ্রের। চট্টগ্রাম-১২ পটিয়া আসনের জাতীয় পার্টি প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম জাল ভোট ও প্রশাসনের পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন। - See more at: http://www.dailyinqilab.com/2014/01/05/152920.php#sthash.xmxIFW3Y.dpuf