Friday, 15 March 2013

বাকশালী থাবায় বন্ধ হচ্ছে ফেসবুক পেইজ ও মিডিয়া।বাশেরকেল্লা নিয়ে ডেইলি স্টারের ভন্ডামি



বর্তমান সরকারের কার্যক্রম দেখে অনুমান করতে পারি বাকশাল কত জঘন্য ছিলো ..আমরা যারা রক্ষীবাহিনী দেখেনি তারা বর্তমান সরকারের পেটুয়া পুলিশ ও বিজিবি দেখলে অনুমান করতে পারি ওরা কত নিষ্ঠুর ছিল .

বাকশালের কারণে ৪ টি পত্রিকা ছাড়া দেশের সবকটি পত্রিকা বন্ধ করা হয়েছিল। মুজিব বাবার দল ছাড়া সব নিষিদ্ব করা হয়েছিলো ..ঠিক বর্তমান ডিজিটাল আওয়ামী সরকার ক্ষমতায় আসার পর তারই ধারাবাহিকতা দেখতে পারছি . 

বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর প্রথমেই চ্যানেল 

ওয়ান বন্ধ বন্ধ করে দিয়েছিলো



কারণ ছিল বাংলাদেশে অবস্থিত আওয়ামীলীগের প্রভু ভারতের হাইকমিশনের বিরুদ্বে অবৈধভাবে গুলশানে রাস্তা ব্যবহারের বিরুদ্বে একটি রিপোর্ট 

এই সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাকশালী হিংস্র থাবায় ক্ষতবিক্ষত হয় দৈনিক আমারদেশ ও তার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান ..



কারণ ছিল হাসিনা পুত্র জয় ও উপদেষ্টা তৌফিক এ এলাহির বিরুদ্বেদুর্নীতির খবরের বোমা ফাটানোর পর 



মাহমুদুর রহমানকে এই খবর প্রকাশের কারণে রিমান্ডে নিয়ে র এবং সরকারের পেটুয়া বাহিনী ডিজিআইএফ এর অফিসে রিমান্ডের নামে চালায় নারকীয় তান্ডব ও বর্বরতা। সাথে গ্রেপ্তার করা হয় রিপোর্টার অলি উল্লাহ নোমান ..যিনি এখন সরকারের নির্যাতন ও হুমকির কারণে লন্ডনে আছেন . 

তারপর বাকশালী প্রেতাত্বাদের কবলে পড়ে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্লগ সোনারবাংলাদেশ ব্লগ 



..যেখানে সুস্থ মনমানুষিকতার ও ও বিভিন্ন মতের মানুষ ব্লগিং করতো .. কিন্তু সরকার বিরোধী বলে বন্ধ করে দেয় এই বাকশালী সরকার 

গুম করা হয় এই ব্লগের এডমিনকে ..এখনো কোনো খবর নাই , কোর্টে ও হাজির করা হয়নি এখনো .



ছবি : সোনারবাংলাদেশ ব্লগের এডমিন আমিনুল মোহায়মেন 

সরকারের বিভিন্ন দূর্নীতর খবর প্রকাশ করার কারণে তারপর বন্ধ করা হয় জনপ্রিয় ওয়েব সাইট শীর্ষ নিউজ 



শীর্ষ নিউজের সম্পাদককে গ্রেপ্তার করার পর রিমান্ডে নিয়ে অকথ্য নির্যাতন করা হয় ..



আজকে সরকার আবার ও আমারদেশ পত্রিকার অনলাইন ভার্সন বন্ধ করে দিয়েছে ..যেটি এলেক্সা রাঙ্কিং এ ১৩ নাম্বার ছিল .. 

তারপর সরকার হামলা করলো ফেসবুকে ..ব্যান করলো শত শত আইডি ..আজকে তৃতীয়বারের মত বন্ধ করে দেওয়া হলো ফেসবুকের সবচেয়ে জনপ্রিয় পেইজ বাশেরকেল্লা 



প্রথমবার বাশেরকেল্লা বন্ধ করার সময় লাইকের সংখ্যা ছিল ৪০হাজারের মত



১ম বাশেরকেল্লার লিঙ্ক 

তারপর ২য় বার খুললে গত কয়েকদিনে লাইক পড়ে ১ লক্ষ ২৪ হাজারের মত



২য় বাশেরকেল্লা 

আজকে আবার ব্যান করার আগে মাত্র ৭ ঘন্টায় লাইক পড়ে ৪০ হাজারের মত ..এই পেইজটি জনপ্রিয় হওয়ার একমাত্র কারণ ছিলো সরকারের ফ্যাসিবাদী জনগনের সামনে তুলে ধরা এবং দেশে সরকারের নির্যাতন ও দুর্নীতির লাইভ আপডেট দেওয়া . 

এদিকে বাশেরকেল্লা নিয়ে চরম ভন্ডামি ও হলুদ সাংবাদিকতার নির্লজ্ব নমুনা দেখিয়েছে ডেইলি ষ্টার 

বাংলাস্তান নামের শিরোনামে ডেইলি ষ্টার লিখেছে বাশেরকেল্লা নাকি দেশে সহিংসতাকে উস্কে দিচ্ছে .কিন্তু ডেইলি ষ্টার যে পেইজের উদ্বৃতি দিয়েছে তা ছিল বাশেরকেল্লা নামের আরেকটি ফেইক ফেসবুক ফেইজ থেকে যা ডেইলি স্টারের বানানো ..

একটি স্ক্রীন শট দেখলে বিষয়টি আরো পরিস্কার হবে 



দেখুন এই পেইজে লাইক সংখ্যা হলো ৩রা মার্চ ৩ হাজার ৬০০..অন্যদিকে যারা বাশেরকেল্লা পেইজ সম্পর্কে জানেন তারা বলতে পারবেন বাশেরকেল্লা গত কয়েকদিন আগে বন্ধ করার পর এক দিনেই ১৫ হাজার লাইক পড়েছিল 



উপরের স্ক্রীন শটে দেখুন, স্ক্রিন শটের উপরের অংশ হলো আসল আর নিচের অংশ হলো ভুয়া বাশের কেল্লার ফেসবুক পেইজ ..ডেইলি ষ্টার ভুয়া বাশেরকেল্লার স্ক্রীন শট দিয়ে হলুদ সাংবাদিকতার নির্লজ্ব নমুনা রেখেছে .

বাশেরকেল্লার সাথে সাথে গত কয়েক দিন আগে বন্ধ করা হয় আরো কয়েকটি পেইজ 

ডেইলি স্টারের এই ভন্ডামি নিয়ে আরো বিস্তারিত জানুন এখানে 

তারমধ্যে অন্যতম ছিল ভিশন ২০২১ ,

আওয়ামী ট্রাইবুনাল ,



প্যান্টের উপর আন্ডারওয়ার পরলে সুপারম্যান হওয়া যায়না ইত্যাদি .




এই হচ্ছে বাংলাদেশে ডিজিটালের নামে বাকশালী সরকারের বাকশালী কর্মকান্ড ..আওয়ামীলীগ এমন একটি দলের নাম যারা বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না ..যারা পারে শুধু বিরোধী মতকে রক্ষী বাহিনী দিয়ে দমন করতে ..তাদের দ্বারা বাকশাল গঠন করার সম্ভব কিন্তু ডিজিটাল বাংলাদেশ না .