Sunday, 13 October 2013

বাংলাদেশে যে জায়গায় খেতে পারেন

ঢাকার মধ্যের খাবার:-

১. বেচারাম দেউরীতে অবস্হিত নান্না বিরিয়ানি এর মোরগ-পোলাও
২. ঝিগাতলার সুনামী রেস্তোরা এর কাচ্চি বিরিয়ানী, গাউছিয়া হোটলের গ্রিল
৩. খিঁলগাও এর ভোলা ভাই বিরিয়ানী এর গরুর চাপ এবং মুক্তা বিরিয়ানী এর গরুর চাপ, খাসীর চাপ এবং ফুল কবুতর
৪. মতিঝিলের ঘরোয়া হোটেল এবং হীরাঝীলের ভূনা খিচুড়ী
৫. হোটেল আল-রাজ্জাকের কাচ্চি+গ্লাসি
৬. লালমাটিয়ার স্বাদ এর তেহারী
৭. নবাবপুর রোডে হোটেল স্টার এর খাসীর লেকুশ, চিংড়ি ,ফালুদা
৮. নয়াপল্টনে হোটেল ভিক্টোরীতে ৭০টি আইটেমের বুফে
৯. হাতিরপুল মোড়ে হেরিটেজ এর শর্মা
১০. শ্যামলী রিং রোডের আল-মাহবুব রেস্তোরার গ্রীল চিকেন
১১. মোহাম্মদপুর জেনেভা/বিহারী ক্যাম্পের গরু ও খাশির চাপ
১২. মোহাম্মদপুর টাউন হল বাজারের সামনের বিহারী ক্যাম্পের "মান্জারের পুরি",কাবাব,গ্রীল চিকেন,গরুর চাপ,
১৩. চকবাজারের শাহ সাহেবের বিরিয়ানী
১৪. মিরপুর-১০-এর শওকতের কাবাব
১৫. নারিন্দার শাহ সাহেবের ঝুনার বিরিয়ানী
১৬. ইংলিশ রোডের মানিকের নাস্তা
১৭. গুলশানের কস্তুরির সরমা
১৮. সোবহানবাগের প্রিন্স রেস্টুরেন্ট এর কাকড়া
১৯. সাইন্স-ল্যাবের ছায়ানীড়ের গ্রীল-চিকেন
২০. নাজিরা বাজারের হাজীর বিরিয়ানী
২১. জেলখানা গেটের পাশে হোটেল নিরবের ব্রেন ফ্রাই
২২. নয়া বাজারের করিমের বিরিয়ানী
২৩. হাজি বিরিয়ানী এর উল্টা দিকের হানিফের বিরিয়ানী
২৪. লালবাগের ভাটের মসজিদের কাবাব বন
২৬. বংশালের শমসের আলীর ভূনা খিচুড়ী
২৭. খিলগাঁও বাজারের উল্টো পাশে আল রহমানিয়ার গ্রীল চিকেন আর তেহারী
২৮. মতিঝিল সিটি সেন্টারের পিছনের বালুর মাঠের পিছনের মামার খিচুড়ী
২৯. চানখারপুলের নীরব হোটেলের ভুনা গরু আর ভর্তার সাথে ভাত
৩০. ধানমন্ডী লায়লাতির খাসির ভুনা খিচুড়ী
৩১. হোসনী দালান রোডে রাতের বেলার পরটা আর কলিজা ভাজি
৩২. নাজিরা বাজার মোড়ে বিসমিল্লার বটি কাবাব আর গুরদার
৩৩. পুরানা পল্টনে খানা-বাসমতির চাইনিজ প্যাকেজ
৩৪. বনানীর বুমারস রেস্টুরেন্টের বুফে প্যাকেজ
৩৫. ধানমন্ডির কড়াই গোশত এর ইলিশ সস
৩৬. গুলশান ২ এর খাজানার মাটন দম বিরিয়ানী এবং হাইদ্রাবাদী বিরিয়ানী
৩৭. উত্তরার একুশে রেস্তোরার গ্রীল চিকেন
৩৮. ধানমন্ডি/বনানীর স্টার হোটেলের কাচ্চি এবং কাবাব
৩৯. মৌচাকের স্বাদ রেস্তোরার ভাতের সাথে ৩৬ রকমের ভর্তা
৪০. সাইন্স ল্যাবে মালঞ্চ রেস্তোরার কাচ্চি বিরিয়ানী, রেশমী কাবাব
৪১. সুবহানবাগের তেহারী ঘর এর তেহারী-ভুনা খিচুরী
৪২. ভূত এর কাকড়া, সিজলিং, সূপ
৪৩. শর্মা এন পিজ্জার বীফ শর্মা
৪৪. মিরপুর ঝুট পট্টির রাব্বানির চা
৪৫. চকের নূরানি ড্রিংস এর লাচ্ছি
৪৬. চকের বিসমিল্লাহ হোটেলের মোঘলাই পরটা
৪৭. সেন্ট ফ্রান্সিস স্কুলের সামনের মামার আলুর দম।
৪৮. সোহরয়ার্দী কলেজের সামনে জসিমের চটপটি ও ফুচকা।
৪৯. বাংলাবাজারে (সদরঘাট) চৌরঙ্গী হোটেলের সকালের নাস্তা।
৫০. অমূল্য মিষ্টান্ন ভান্ডারের (শাঁখারীবাজার) হালুয়া, পরোটা, সন্দেশ।
৫১. গোপীবাগের খাজা হালিম ও টিটির কাচ্চি
৫২. বাসাবোর হোটেল রাসেলের "শিককাবাব"
৫৩. বায়তুল মোকাররমে অলিম্পিয়া কনফেকশনারীর "চকলেট পেস্টি"
৫৪. কর্নফুলি গার্ডেন সিটির চার তালার "ফুচকা"
৫৫. কাঁটাবন ঢালে অষ্টব্যঞ্জনের বিফ খিচুড়ী
৫৬. পল্টনের (বিজয়নগর পানির ট্যাকিংর পেছনে) নোয়াখালী হোটেলের গরুর কালো ভুনা
৫৭. ডিসেন্ট (মতিঝিল, হাতিরপুল, বনশ্রী, ধানমন্ডি, চক, নওয়াব---এদের প্রচুর শাখা) এর ডেজার্ট আইটেমগুলা ভালো।
৫৮. ব্রাক ভার্সিটির কাছে নন্দন।এদের আইটেম ভালো।বিফ আইটেম চরম।আর ঢাকার বেস্ট চা।

ঢাকার বাইরের খাবার:-

১. স্পেশাল শাক ভাজি + ভেটকি মাছ--হোটেল সাজনা, আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম
২. করাই মাটন+সাতকরা দিয়ে গরুর মাংস, কাবাব এবং নান, হাইদ্রাবাদী বিরিয়ানী-হোটেল উন্দাল, পূর্ব জিন্দাবাজার, সিলেট
৩. কালাই রুটি-- কোর্টের সামনে, রাজশাহী
৪. রুইমাছ ভাজি--কস্তুরি হোটেল, খুলনা
৫. মামুনের চাপ/জনি কাবাব এণ্ড চাপ--চার খাম্বার মোর, যশোর
৬. খুলনার হারুন ভাইয়ের ইলিশ ভাজা, বেজের ডাঙ্গার মুসলিম হোটেলের গরুর মাংস
৭. কক্সবাজারের পৌশির ভর্তা আইটেম, নিরিবিলির খিচুড়ি
৮. বিদ্যুতের কলিজার সিঙ্গারা ও খাসির সমুচা— সাহেব বাজার, রাজশাহী,
রাজশাহীর মিষ্টান্ন ভান্ডারের কমলা ভোগ,
রাজশাহী 'শামীম রেস্টুরেন্ট' এর টক দিয়ে সিঙারা,
রাজশাহীর বর্ণালীর মোড় এর তিলের জিলাপী
৯. চট্টগ্রামে - নিউ মার্কেট মোড়স্থ এ বি পি হোটেলের চা পরটা,
জি ই সি মোড়ের হান্ডিতে তেহেরী,
আগ্রাবাদস্থ সিরভার স্পুন এর ছোট জিলাপি ও দই,
হালিশহরস্থ গাউসিয়া হোটেল এর ফিরনী ও চা,
আন্দরকিল্লা মদিনা'র শাক।
১০. চট্টগ্রামের চকবাজার সবুজ হোটেলের- সিঙ্গারা,
রেয়াজউদ্দিন বাজারের- দইচিড়া,
তুলসিধাম বোস ব্রাদার্সের- মিস্টি
১১. রংপুরের সিঙ্গারা হাউজের সিঙ্গারা with সস্
১২. বগুড়ার দই
১৩. গাইবান্ধার রস মালাই,
১৪. নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার গরম গরম স্পন্জের মিস্টি।
১৫. নারায়ণগঞ্জের আমলাপাড়া এলাকায় আলম কেবিনের সকালের নাস্তা, দুই নাম্বার রেলগেট এলাকায় বোস কেবিনের চা ও কাটলেট।
১৬. কুমিল্লায় অরিজিনাল মাতৃভান্ডারের (কান্দিরপাড়ের মনোহরপুড়ে দোকান) রসমালাই।
১৭. সিরাজগঞ্জের ধানসিঁড়ির দই। বগুড়ার দই এইটার কাছে কিসুনা। এইখানে একটা ঘি পাওয়া যায়। সেইটাও মারাত্নক।
১৮. সেন্ট মার্টিনে কুমিল্লা হোটেলের (জাহাজ ঘাটের কাছে) মিক্সড শুটকী ভর্তা।
১৯. সিলেটের উন্দাল রেস্টুরেন্টের হায়দ্রাবাদী ও চিকেন বিরিয়ানী, তন্দুরী চিকেন-স্পেশাল নান, স্পেশাল সালাদ।
২০. তালাইমারীর বট-পরোটা ( রাজশাহী ), বাটার মোড়ের জিলাপী ( রাজশাহী )
২১. মুক্তাগাছার মণ্ডা ( ময়মনসিংহ ),
২৩. দয়াময়ী মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের খেজুর গুরের সন্দেশ ( ময়মনসিংহ ),
২৪. জয়কালী মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের ছানার পোলাও ( ময়মনসিংহ ),
২৫. চুকনগরের খাসির মাংস ( খুলনা ),
২৬. বরিশালের শশী মিষ্টি
২৭. সিলেটের শাহপরান মাজার গেটের মালাই চা, পুরাই সি....রাম।
জিন্দাবাজারের পাঁচ ভাই হোটেলের কোয়েলের রোস্ট।
২৮. খুলনার চুকনগরের আব্বাসের খাসির মাংশ
২৯. চাঁপাই নবাবগন্জের নশীপুরের দই,
চাঁপাই নবাবগন্জের শিবগন্জের মনাকষা বাজারের স্পন্জ গোল্লা / দমমিস্টি,
চাঁপাই নবাবগন্জের কলাইয়ের রুটি ও ধনিয়া পাতার চাটনি
৩০. নেত্রকোনার বালিশ মিষ্টি