Friday, 31 May 2013

ভোলায় মন্দিরে আওয়ামী লীগ নেতার হামলা প্রতিমা ভাঙচুর, আহত ৪, গ্রেপ্তার ৩


ভোলার লালমোহনের লর্র্ডহার্ডিঞ্জের মন্দিরে হামলা চালিয়ে প্রতিমা ভাঙচুর করেছে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আলী ব্যাপারী ও তার দল। এ সময় তাদের মহিলাসহ 
৪ জন আহত হয়েছেন। মন্দিরের পুরোহিত কিরণ চন্দ্র দাস জানান, বেলা ১২ টার দিকে মন্দিরের ভিতর গরু আসাকে কেন্দ্র করে ঝর্ণা রানী দাসের সাথে লর্ড হার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ছেলে সিরাজের কথাকাটাকাটি হয়। এ সময় মন্দিরের পুরোহিত বাধা দিলে তিনি চলে যান। এরপর বেলা সাড়ে ১২টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতা আলী ব্যাপারীর নেতৃত্বে সিরাজ, মোসারেফ, মোবারক, রিয়াজ, সানাউল্লাহ, লোকমান, কামরুল ও গালপোড়া অনুসহ একদল সন্ত্রাসী মন্দিরের ভিতর ঢুকে প্রতিমা ভাঙচুর করে। এ সময় বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা কিরণ চন্দ্র দাস, ঝর্ণা রানী দাস, বিরঙ্গী বৈশ্য, ববিতা রানী দাসকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এলাকাবাসী আহতদের হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে ভোলা জেলার কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মোবাশ্বের উল্লাহ চৌধুরী বলেন, লালমোহনের লর্ড হার্ডিঞ্জ-এর সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায় বিভিন্ন সময় কারণে-অকারণে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন, আর এই নির্যাতনের গডফাদার হচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতারা। তিনি দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও করেন। লালমোহন থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগ নেতা অলি ব্যাপারীর দুই ছেলেসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অলি ব্যাপারীকেও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। 
ভোলায় মন্দিরে আওয়ামী লীগ নেতার হামলা প্রতিমা ভাঙচুর, আহত ৪, গ্রেপ্তার ৩